বাংলাদেশ দূতাবাস বাহরাইনের আয়োজনে শেখ ফজিলাতুন নেছা ও শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত: ৬:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৮, ২০২১ | আপডেট: ৬:৪৬:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৮, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সহধর্মিনী শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর ৯১ তম জন্মবার্ষিকী ও জ্যেষ্ঠপুত্র শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী গভীর শ্রদ্ধায় পালন করা হয়।

(৮ আগষ্ট) রবিবার বিকেল ৪ টায় বাংলাদেশ দূতাবাসের হল রুমে দিবস উপলক্ষে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং মাননীয় মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতালয় প্রধান মো.রবিউল ইসলাম ও কাউন্সিলর (শ্রম) শেখ মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম।

বাহরাইনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মো. নজরুল ইসলাম বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ও স্বাধীনতা সংগ্রামের পেছনে তার সহধর্মিণী মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের অপরিসীম ত্যাগ, বিচক্ষণতা ও অবদানের কথা তুলে ধরেন। তিনি জ্যেষ্ঠপুত্র শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের অনন্য চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যসমূহ তরুণ প্রজন্মের জন্য অনুকরণীয় বলে উল্লেখ করেন।

শোকের এই মাসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর পরিচয় আত্মজীবনী সকল আরববাসীর কাছে ডিজিটাল মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়ার জন্য তিনি তার অভিনব ধারনার কথাও উপস্থিত প্রবাসীদের অবগত করেন।

করোনাভাইরাস এর কারণে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে এই দিবস দুটি পরম শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হয়, এসময় বঙ্গমাতা ও বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্রের উপর দুটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

ভার্চুয়াল আলােচনা অংশগ্রহণ করেন দূতাবাসের কর্মকর্তা কর্মচারী ও বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ সহ সাংবাদিক নেতারা।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকল শহীদ সদস্যবৃন্দ ও মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের আত্মার মাগফেরাত এবং দেশ ও জাতির অব্যাহত সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মােনাজাত করা হয়।